৫ টাকা না দেওয়ায় ম্যাজিস্ট্রেটের নম্বরে ফোন, নাদিম পেল ২৫০০ টাকা

বিমানবন্দরের দুই ব্যবসায়ীকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা গুনতে হয়েছে পানির খালি বোতলের বিপরীতে পাঁচ টাকা ফেরত না দেয়ার অভিযোগে । বিমানবন্দরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দু’জন গ্রাহকের অভিযোগের ভিত্তিতে এ জরিমানা করেন। অভিযোগ করা দুই গ্রাহকের মধ্যে একজন কিশোর, অন্যজন তরুণ।

অভিযোগকারীদের একজন নাদিম হোসেন নবম শ্রেণির ছাত্র। অভিযোগকারী অন্যজন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক থাকায় তার পরিচয় জানায়নি কর্তৃপক্ষ। হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আহমেদ জামিল বলেন, ওই কিশোর ও তরুণ বিমানবন্দরে এসেছিল বিদেশফেরত পরিবারের সদস্যদের নিয়ে যেতে। অপেক্ষার ফাঁকে তারা বিমানবন্দরের ক্যানপির বাইরের দিকে অবস্থিত দু’টি দোকান থেকে পানি ও কোমল পানীয় কিনেছিল।

দাম দিতে গিয়ে তারা দেখতে পায়, দোকানি বোতলের গায়ে লেখা দামের চেয়ে পাঁচ টাকা বেশি রাখছেন। দোকানের এক পাশে টাঙানো ব্যানারে লেখা আছে যে খালি বোতল ফেরত দিলে পাঁচ টাকা ফেরত দেয়া হবে। অথচ দোকানি সে বিষয়ে কিছু বলছে না। দোকানিকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে সে জানায়- বোতল ফেরত দিয়ে পাঁচ টাকা নিতে হলে নাকি আরও পাঁচ টাকা দিতে হবে!

ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, বাধ্য হয়েই তারা কল দিলেন এয়ারপোর্ট ম্যাজিস্ট্রেটের নম্বরে। অপরাধী দুই দোকানির প্রত্যেককে দশ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের বিধান অনুযায়ী অভিযোগকারীরা আদায়কৃত জরিমানার ২৫ শতাংশ অর্থাৎ ২৫০০ টাকা করে বুঝে নিয়েছেন। তিনি বলেন, এ বয়সে নিজের অধিকার সচেতন হয়ে সে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে অভিযোগ করেছে। এটা প্রশংসাযোগ্য কাজ।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত