মোটরসাইকেল কিনে না দেয়ায় আত্মহত্যা করল স্কুলছাত্র

প্রকাশিত: জানু ২৪, ২০২২ / ০৩:০৬অপরাহ্ণ
মোটরসাইকেল কিনে না দেয়ায় আত্মহত্যা করল স্কুলছাত্র

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় রাগ করে গলায় ফাঁস দিয়ে হাসান আলী (১৫) নামে এক স্কুলছাত্র আত্মহত্যা করেছে। তার বাবা একজন দরিদ্র মানুষ; মৎস্য আড়তে কাজ করেই তাদের সংসার চলে।

সোমবার সকালে উপজেলার চৌবাড়িয়া হারোপাড়া গ্রামে বাড়ির নির্মাণাধীন ভবনের জানালা থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত হাসান আলী উপজেলার চৌবাড়িয়া হারোপাড়া গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে ও সরকারি ভাঙ্গুড়া ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্র।

প্রতিবেশীরা জানান, হাসান শান্তশিষ্ট স্বভাবের। সে তার বাবার সঙ্গে শরৎনগর বাজারের মৎস্য আড়তে কাজ করত। সম্প্রতি হাসান আলী বাবার কাছে থেকে মোটরসাইকেল কিনে চায়। দরিদ্র বাবার পক্ষে তা সম্ভব না হওয়ায় অভিমান করে হাসান।

রোববার দিবাগত রাতে হাসান আলী বসতঘরের পাশে নির্মাণাধীন ভবনের জানালায় দড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস দেয়।

সকালে তার মা বিল্ডিংয়ের পেছনে তাকে ঝুলন্ত দেখতে পেয়ে চিৎকার দেয়। এরপর তার বাবা সেখানে গিয়ে ছেলের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান।
ভাঙ্গুড়া থানার উপ-পরিদর্শক শুভ্র জানান, এ বিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলার প্রস্তুতি চলছে।

তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, মোটরসাইকেল না পেয়ে হাসান আত্মহত্যা করেছে। লাশ ময়না তদন্ত হবে কি না এমন প্রশ্নে তিনি জানান, তার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এসে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন