নেতৃত্ব না দিতে হলেই ভালো হবে : সাকিব

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে জিততে পারেনি স্বাগতিক বাংলাদেশ। বিশাল ব্যবধানে হেরে যাওয়ার দায় নিজের উপর নিয়েছেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ম্যাচ শেষে নেতৃত্ব সম্পর্কে মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘নেতৃত্ব যদি না দিতে হয় সেটা সবচেয়ে ভালো হবে আমার জন্য। ব্যক্তিগত কথা চিন্তা করলে আমার ক্রিকেটের জন্য ভালো হবে। যদি লিড দিতেই হয় তবে অবশ্যই অনেক কিছু আলোচনার আছে।’

ব্যাটিংয়ে প্রথম ইনিংসে আফগানদের ৩৪২ রানের জবাবে বাংলাদেশ অলআউট হয়েছে মাত্র ২০৫ রান করে। দ্বিতীয় ইনিংসে আফগানিস্তানের প্রথম তিন উইকেট দ্রুত তুলে নিলেও নিয়মিত বিরতিতে উইকেট শিকার অব্যহত রাখতে পারেনি। ২৬০ রান করে আফগানিস্তান বাংলাদেশকে ছুঁড়ে দেয় ৩৯৮ রানের এক বিশাল লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে বাংলাদেশ অলআউট হয় ১৭৩ রানে।

শেষদিন হাঁতে ছিল চার উইকেট। দিনভর বৃষ্টি আশা জাগিয়েছিল ম্যাচ বাঁচানোর। কিন্তু শেষ বিকেলে ৭০ মিনিট টিকে থাকার পরীক্ষায় নামলে উত্তীর্ণ হতে পারেনি বাংলাদেশ। ৩ ওভার ২ বলের সময় বাকি থাকতেই অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। সব মিলিয়ে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স ছিল একদম বিবর্ণ। সামর্থ্যহীনতার কারণেই যে সেই ব্যর্থতা সেটা সাকিব আল হাসান মেনেও নিয়েছেন সংবাদ সম্মেলনে। দলের পারফরম্যান্স মূল্যয়ন করতে গিয়ে একশ নম্বরে দিয়েছেন শুন্য।

১৩ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজ। সেখানে স্বাগতিক বাংলাদেশের সঙ্গে রয়েছে আফগানিস্তান আর জিম্বাবুয়ে। টি-২০ ফরম্যাটে দলের অবস্থা টেস্টের চেয়েও নাজুক বলে মনে করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘টি-২০ তে আমরা আফগানিস্তানেরও নিচে। ঐ ফরম্যাটে উন্নতি লাগবে না। টেস্ট ম্যাচ তো বড় বড় দলের সাথে জিতেছি। টি-২০ ম্যাচে তো ধারেকাছেও যেতে পারি না কোনো দলের। প্রথম ম্যাচটা জেতা খুব গুরুত্বপূর্ণ। তাহলে হয়তো সবকিছু একটু নিয়ন্ত্রণে আনার সম্ভাবনা আছে। সেজন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। যদিও হাতে খুব বেশি সময় নেই। আজ ৯ তারিখ, ১৩ তারিখে প্রথম ম্যাচ। তিন দিন হাতে সময় আছে। খুব তাড়াতাড়ি ঘুরে দাঁড়াতে হবে।’

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত