গাভীকে ‘ধোঁকা’ দিয়ে বাড়তি দুধ পাচ্ছেন খামারি

প্রকাশিত: জানু ১৪, ২০২২ / ০৩:৩১অপরাহ্ণ
গাভীকে ‘ধোঁকা’ দিয়ে বাড়তি দুধ পাচ্ছেন খামারি

গাভীর দৈনিক দেয়া দুধে পোষাচ্ছিল না খামারির। আরও দুধ চায় তার। তাই তিনি রাশিয়ার এক খামারির বুদ্ধি অনুসরণ করেন। ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগ নিয়ে সফলও হয়েছেন তিনি।

ডেইলি সাবাহর প্রতিবেদনে বলা হয়, তুরস্কের ওই খামারি ভার্চুয়াল রিয়েলিটি প্রযুক্তির তৈরি (ভিআর) গগলস পরিয়ে গাভীকে বিভ্রান্ত করে আদায় করে নিচ্ছেন বাড়তি দুধ।

ভিআর এমন এক প্রযুক্তি, যা ব্যবহারে কল্পনা বা চেতনা বাস্তব হয়ে চোখের সামনে ভেসে ওঠে। দুধ দোয়ানোর আগে, ওই খামারি গাভীদের সেই ভিআর গগলস পরিয়ে দেন। এতে গাভীগুলো চোখের সামনে সবুজ চারণভূমি দেখে। স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। ফলে দুধ দেয় বেশি।

তুরস্কের আনাতোলিয়া রাজ্যের আকসারায়ে শহরের পুরোনো খামার ব্যবসায়ী ইজেট কোচাক। ২০১৮ সালে এই ব্যবসা শুরু করেন। বর্তমানে তার খামারে আছে ১৮৮টি গৃহপালিত প্রাণী।

খামারের মালিক বলেন, গরুকে পুষ্টিকর খাবার খাইয়েও লাভ হয়নি। একদিন জানতে পারি, রাশিয়ায় ভিআর প্রযুক্তি ব্যবহার করে খামারিরা বাড়তি দুধ পাচ্ছেন। আমিও সেই পথেই হাঁটি।

আরও পড়ুন: দলছুট বাছুরকে না খেয়ে মায়ের কাছে ফিরিয়ে দিলো সিংহী!

ইজেট আরও বলেন, ভিআর গগলস পরানো হলে গাভীগুলো মনে করে যে তারা রুদ্ধ কোনো জায়গায় নেই। খোলা আকাশের নিচে সবুজ চারণভূমিতে আছে। সাথে বাজতে থাকে ক্লাসিক্যাল মিউজিক। আর এর ফলে আগে যেখানে দিনে গড়ে ২২ লিটার করে দুধ পেতাম, এখন পাচ্ছি ২৭ লিটার।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন