অন্তঃসত্ত্বা মেয়েকে ‘জমির জন্য’ পেটে লাথি মেরে বাড়িছাড়া করল বাবা

প্রকাশিত: ডিসে ৩, ২০২১ / ১১:৩২অপরাহ্ণ
অন্তঃসত্ত্বা মেয়েকে ‘জমির জন্য’ পেটে লাথি মেরে বাড়িছাড়া করল বাবা

গাজীপুরের টঙ্গীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর ও অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় যুবলীগ নেতার স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বাসহ দুইজন আহত হয়েছেন। শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) জুমার নামাজের পর মধুমিতা রেলগেট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেও কাউকে আটক করেনি।

আহতরা হলেন, ৫৬ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক রাসেদ চৌধুরীর স্ত্রী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা শিরিন আক্তার মুন্নি (২৮) ও রাশেদের বন্ধু মো. সাজ্জাদ হেসেন (২৪)। গুরুতর অসুস্থ মুন্নিকে টঙ্গীর শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সিসি ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিও’র বরাদ দিয়ে রাসেদ চৌধুরী জানান, ব্যবসায়িক বিষয় নিয়ে তার ভগ্নিপতি স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইমরান তালুকদার বছিরের সঙ্গে স্থানীয় শুক্কুর আলীর দ্বন্দ্ব ছিল।

দুই দিন আগে শুক্কুরের বিরুদ্ধে টঙ্গী পূর্ব থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তার ভগ্নিপতি। শুক্রবার জুমার নামাজের পরপরই শুক্কুর আলীর নেতৃত্বে মোমেন, সাইফুল, মাহবুব, খোরশেদ, সালসা সুমনসহ ১২-১৪ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে প্রথমে মদিনাপাড়া এলাকায় বছিরের বাড়িতে হামলা চালায়।

সেখানে তাকে না পেয়ে সন্ত্রাসীরা তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করে। ওই সময় তিনি বাসায় ছিলেন না। একা পেয়ে শুক্কুর আলী তার পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি মারধর এবং এক পর্যায়ে পেটে লাথি মেরে গুরুতর আহত করে। চলে যাওয়ার সময় তারা রাস্তায় পেয়ে তার বন্ধু সাজ্জাদকে বেধড়ক মারধর করে।

তিনি আরো জানান, শুক্কুর আলী এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে মাদক, অস্ত্র, চাঁদাবাজি, ছিনতাইসহ একাধিক মামলা রয়েছে। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে চাঁদার দাবিতে ভারতীয় নাগরিককে মারধরের মামলা রয়েছে।

যোগাযোগ করা হলে টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাসুদ বলেন, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। প্রধান অভিযুক্ত শুক্কুরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন