ওমিক্রন নিয়ে আতঙ্কিত নয় সরকার, সতর্ক রয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ডিসে ২, ২০২১ / ১১:৩০অপরাহ্ণ
ওমিক্রন নিয়ে আতঙ্কিত নয় সরকার, সতর্ক রয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, সরকার করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপারে সতর্ক, তবে আতঙ্কিত নয়।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্থাপিত বিদেশগামীদের করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষাগার পরিদর্শন শেষে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

এসময় বিদেশ ফেরত কোনো যাত্রী বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন থেকে পালালে সংশ্লিষ্ট হোটেলের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন জাহিদ মালেক।

বিমানবন্দরে পরীক্ষাগার স্থাপন কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন মোকাবিলা করতে সবাইকে মাস্ক পরতে হবে, সেই সঙ্গে টিকা নিতে হবে। নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট যেন দেশে ছড়াতে না পারে সে ব্যাপারে সরকার সতর্ক রয়েছে।’

জাহিদ মালেক বলেন, ‘বিদেশ ফেরত যারা এসেছেন তাদের খুঁজে বের করার জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। এবং তারা এ বিষয়ে কাজ করছেন। এটা এক মাস আগের কথা। এখন তো অনেক দিন পার হয়ে গেছে। তারপরেও আমরা ছাড়ছি না। ‘

খুঁজে সবাইকে বের করা হবে।’ তিনি আরও জানান, প্রবাসীরা যেসব হোটেল থেকে নিয়ম ভেঙে বেরিয়ে যাবে সেসব হোটেলকেও আইনের আওতায় আনা হবে।

মন্ত্রী জানান, আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ থেকে ফেরা ২৪০ জনকে খুঁজে বের চেষ্টা চলছে। ওইসব দেশ থেকে ফিরে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন পালন না করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

জাহিদ মালেক বলেন, ‘ওমিক্রনের যে ভ্যারিয়েন্ট বেরিয়েছে এটা নিয়ে সবাই চিন্তিত। আমরা সতর্ক কিন্তু আমরা প্যানিক করব না। সংক্রমণ হলে পরেও তার লক্ষণগুলো মৃদু। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরই আমরা জনগণকে এ ব্যাপারে জানিয়ে দেব।’

পরীক্ষাগারটিতে ছয়টি ল্যাব আছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, প্রয়োজনে ল্যাবের সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে। অল্প কিছুদিনের মধ্যেই এটি চালু হবে এবং তখন বিদেশগামীদের ভোগান্তি আরও কমবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন মন্ত্রী।

জাহিদ মালেক বলেন, ‘আমার মনে হয়, পৃথিবীর খুব কম জায়গায় এত বড় পরীক্ষার সুবিধা আছে।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন