বাবর তবুও হালকাভাবে নিচ্ছেনা বাংলাদেশকে

প্রকাশিত: নভে ২৫, ২০২১ / ০৯:২২অপরাহ্ণ
বাবর তবুও হালকাভাবে নিচ্ছেনা বাংলাদেশকে

সদ্যই ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ধোলাই হয়েছে বাংলাদেশ। কাল থেকে শুরু হতে যাচ্ছে টেস্ট সিরিজ। এই সিরিজে থাকছেন না তিন শীর্ষ ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও অবসরে যাওয়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

তারপরও বাংলাদেশকে আসন্ন টেস্ট সিরিজে হালকাভাবে নিতে রাজি নন সফরকারী পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। সংবাদ সম্মেলনে তিনি ঘরের মাঠে বাংলাদশের শক্তিমত্তার কথা মনে করিয়ে দেন।

আঙুলের ইনজুরির কারণে ইতোমধ্যে টেস্ট সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন ওপেনার তামিম ইকবাল। অপরদিকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অপরাজিত ১৫০ রান করা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অবসর নিয়েছেন টেস্ট থেকে।

ফিটনেস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে না পারায় সিরিজের প্রথম টেস্টে অংশ নিতে পারছেন না বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। দ্বিতীয় টেস্টও তিনি মিস করতে পারেন। তাছাড়া সাদা পোশাকে বাংলাদেশের পারফর্মেন্স কখনই ভালো ছিল না।

বাবর আজম আজ সাংবাদিকদের বলেন, ‘পার্থক্য হচ্ছে তারা স্বাগতিক দল। তাদেরকে আমরা হালকাভাবে নিতে পারি না। এটি ঠিক যে দলটি তারণ্য নির্ভর। তবে নিজেদের হোম কন্ডিশনে খেলতে যাচ্ছে।

তারা আমাদের কঠিন পরীক্ষায় ফেলে দিতে পারে, তাই আমাদেরকে মনোযোগী হতে হবে। দলের প্রতি আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আমাদের ধৈর্য্য ধারণ করতে হবে, তাতে স্বাভাবিকভাবেই ফল পাওয়া যাবে। আমরা কঠিন ক্রিকেট খেলব। ‘

বাবর আজমের নেতৃত্বে পাকিস্তান সব ফরম্যাটের ক্রিকেটেই ভালো করছে। আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ ড্র করলেও দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তারা জয়লাভ করেছে।

বাংলাদেশের সঙ্গে ১১ বারের দেখায় ১০টি টেস্ট জিতেছে পাকিস্তান। একটি টেস্ট ড্র হয়েছে। ব্যক্তিগত সাফল্যের চেয়ে দলকে অগ্রাধিকার দেয়াই পাকিস্তানের সাম্প্রতিক সফলতার মুল কারণ বলে উল্লেখ করেন সফরকারী অধিনায়ক।

বাবর আজম বলেন, ‘সবাই যদি নিজ নিজ পজিশনে সঠিক ভাবে কাজটা করে এবং দায়িত্ব নিয়ে নিজের সেরাটা দিয়ে খেলে, তাহলে নেতৃত্ব দেয়াটা সহজ হয়ে যায়। আপনি যখন একই দলে নিয়মিত খেলবেন, তখন দলটি ধারাবাহিক হয়ে উঠে।

ক্রিকেটারদের সহযোগিতা করতে হবে। ব্যক্তিগত খেলার সংস্কৃতি পরিহার করে আমাদেরকে দলবদ্ধ ভাবে খেলতে হবে। কারণ কেউ দলের উর্ধ্বে নয়। তাই সবকিছুর আগে দলকে প্রাধাণ্য দিতে হবে, এরপর ব্যক্তিগত বিষয়ে দৃষ্টি দিতে হবে।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন