শেখ হাসিনা জেগে থাকেন মানুষ যাতে নিশ্চিন্তে ঘুমায়

প্রকাশিত: অক্টো ২৭, ২০২১ / ০৮:০৮অপরাহ্ণ
শেখ হাসিনা জেগে থাকেন মানুষ যাতে নিশ্চিন্তে ঘুমায়

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচন সামনে রেখে আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ছড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। আবারও আগুন-সন্ত্রাসের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এই চক্রের প্রধান পৃষ্ঠপোষক বিএনপি।

আজ বুধবার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের বলরুমে ‘করোনাকালীন শিল্প ও বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনাসভায় তিনি এ কথা বলেন। আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপকমিটির উদ্যোগে এই আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ১৩ বছর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়। গত ১২ বছর দুর্গাপূজায় কোনো সাম্প্রদায়িক হামলা হলো না, অথচ এই ১৩ বছরে এসে হামলা হলো। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক হামলা করা হয়েছে। আন্দোলনে, নির্বাচনে ব্যর্থ হয়ে তারা সাম্প্রদায়িক হামলা শুরু করেছে।

পূজামণ্ডপে, হিন্দুদের বাড়ি-ঘরে যারা হামলা চালিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবস্থান কঠোর জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি এই সাম্প্রদায়িক অপশক্তির নির্ভরযোগ্য পৃষ্ঠপোষক। তারা আবারও পেট্রলবোমা সন্ত্রাসের ষড়যন্ত্র করছে।

বিএনপি এদের ছাতা দিয়ে যাচ্ছে। যারা পূজামণ্ডপে হামলা করেছে, হিন্দুদের বাড়ি-ঘরে হামলা করেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থানে। এদের বিচার হবেই, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে, কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ব্যবসায়ীদের রাজনীতি করা আমি দোষের মনে করি না। কিন্তু রাজনীতি দিয়ে ব্যবসা কেন? রাজনীতিকে ব্যবসার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করাকে আমি ঘৃণা করি। রাজনীতিকে ব্যবসায় ব্যবহার করলে রাজনীতি থাকে না, ব্যবসাও থাকে না।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এই উন্নয়নের বিরুদ্ধে দেশে-বিদেশে অনেক ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ব্যবসা-বাণিজ্য করতে হলে এই ষড়যন্ত্র, এই সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রুখতে হবে। তা না হলে ব্যবসা করতে পারবেন না। এর জন্য আপনাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সাম্প্রদায়িক শক্তি দেশের শত্রু, জাতির শত্রু।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিভিন্ন উন্নয়ন ও মেগাপ্রকল্পগুলোর অগ্রগতি এবং করোনার সময় নেওয়া পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, করোনা মোকাবেলায় শেখ হাসিনার পদক্ষেপ আজ সারা বিশ্বে প্রশংসিত। জীবন ও জীবিকার মধ্যে ভারসাম্য বজায় রেখে জীবনের চাকাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সচল রেখেছেন। তিনি আজ শুধু বাংলাদেশের প্রশংসিত প্রধানমন্ত্রী নন, বিশ্বের কাছে নন্দিত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী বছর জুন মাসের মধ্যে পদ্ম সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। আগামী বছর মোট চারটি মেগাপ্রকল্প আমরা উপহার দেব। বাংলাদেশের মানুষ যাতে নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারে সে জন্য শেখ হাসিনা জেগে থাকেন। নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকা জো বাইডেনকে বলেছে, বাংলাদেশের উন্নয়নের দিকে তাকাও।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য এবং শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপকমিটির চেয়ারম্যান কাজী আকরাম উদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় শিল্পমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন,

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, এফবিসিসিআইর সভাপতি মো. জসীম উদ্দিন, ডি-৮ সিসিআই-এর সভাপতি ও এফবিসিসিআই-এর সাবেক সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম প্রমুখ বক্তব্য দেন। আলোচনাসভায় সূচনা বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য উপকমিটির সদস্যসচিব সিদ্দিকুর রহমান।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন