আফগানিস্তানকে যে প্রতিশ্রুতি দিল চীন

প্রকাশিত: অক্টো ২৭, ২০২১ / ১১:১৬পূর্বাহ্ণ
আফগানিস্তানকে যে প্রতিশ্রুতি দিল চীন

১৫ আগস্ট কাবুল নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। এরপর থেকে বিশ্বের যেসব দেশের সঙ্গে তালেবানের ঘনিষ্ঠতা দেখা গেছে তাদের মধ্যে চীন অন্যতম। দেশটি এবার আফগানিস্তানকে আর্থিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

আফগানিস্তানের গণমাধ্যম টোলো নিউজ এ তথ্য জানায়।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতারের রাজধানী দোহায় চীনের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে দুদিনব্যাপী বৈঠক হয় ইসলামিক আমিরাতের কর্মকর্তাদের সঙ্গে। এসময় দুপক্ষই কূটনৈতিক সম্পর্ক শক্তিশালী করা এবং আফগানিস্তানে চীনের প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে একসঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়।

ইসলামিক আমিরাতের মুখপাত্র এবং তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, মঙ্গলবার চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই ও আফগানিস্তানের উপপ্রধানমন্ত্রী আব্দুল গনি বারাদার, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মোত্তাকি দোহায় বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকে মানবিক সহায়তা হিসেবে চীন ৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

ইসলামিক আমিরাতের এ মুখপাত্র বলেন, তিনটি কমিটি তৈরি করা হবে। প্রথমটি রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক বিষয় নিয়ে কাজ করবে। দ্বিতীয়টি সম্পর্ক তৈরি এবং দুই দেশের মধ্যে বোঝাপড়ার বিষয় গুরুত্ব দেবে। তৃতীয়টি অর্থনৈতিক প্রকল্প নিয়ে কাজ করবে।

ইসলামিক আমিরাতের উপমুখপাত্র বিলাল কারিমি বলেন, বৈঠকে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিকসহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

দোহায় থাকা ইসলামিক আমিরাতের রাজনৈতিক অফিস জানায়, আব্দুল গনি বারাদার বেইজিংকে নিশ্চিত করেছেন যে, আফগানিস্তানের মাটি অন্য দেশের বিরুদ্ধে কখনও ব্যবহার হতে দেওয়া হবে না। একই সঙ্গে চীনা প্রতিনিধি দল আফগানিস্তানকে জানায়, তাদের দেশ আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলাবে না।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েনবিন বলেন, চীন সবসময় আফগানিস্তানের উন্নয়নে আলোচনা ও কাজ করার ইচ্ছা দেখিয়েছে এবং দেশটি আফগানদের সহায়তা করার চেষ্টা করছে।

যে দেশগুলো এ সঙ্কটপূর্ণ সময়েও কাবুলে দূতাবাস খোলা রেখেছে চীন তাদের মধ্যে অন্যতম।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন