কুষ্টিয়ায় হত্যা মামলায় ২ জনের ফাঁসি ও ৩ জনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় সোহাগ হত্যা মামলায় অভিযুক্ত দুই আসামিকে মৃত্যুদণ্ড ও তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

বুধবার সকাল ১১টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরুপ কুমার গোস্বামী এই রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন-কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার আহম্মদপুর গ্রামের আহাদ আলীর ছেলে নাজমুল ও কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার ১২ মাইল এলাকার আবুল কালামের ছেলে মো. রনি।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তরা হলেন-কুষ্টিয়ার চৌড়হাঁস এলাকার ইসমাইল হোসেনের ছেলে মো. রাব্বি, কুমারগাড়া এলাকার আব্দুল আজিজের ছেলে মো. সুজা ও চৌড়হাঁস বড় মসজিদ এলাকার মো. খলিলের ছেলে রফিক।

রায় ঘোষণার সময় মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামি রনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন, বাকিরা পলাতক রয়েছেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালের ৯ অক্টোবর কুষ্টিয়ার কুমারগাড়া এলাকার আব্বাস উদ্দিনের ছেলে সোহাগকে একটি মোবাইল ফোনের জন্য বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে অভিযুক্তরা। এ ঘটনায় সোহাগের খালু শহিদুল ইসলাম ভেড়ামারা থানায় অভিযুক্ত এই পাঁচজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন। ভেড়ামারা থানা পুলিশ ২০১৭ সালের ৩০ এপ্রিল আদালতে চার্জশিট জমা দেন।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও কুষ্টিয়া কোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, হত্যা মামলাটি বেশ আলোচিত। আদালত যে রায় দিয়েছেন তাতে বাদী পক্ষ ন্যায়বিচার পেয়েছে বলে রাষ্ট্রপক্ষ মনে করে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত