বিয়ের ৩ মাস পর সন্তান প্রসব, এরপর যা হলো

প্রকাশিত: অক্টো ১৯, ২০২১ / ১১:০৭অপরাহ্ণ
বিয়ের ৩ মাস পর সন্তান প্রসব, এরপর যা হলো

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে বিয়ের প্রায় ৩ মাস পর এক নববধূ সন্তান প্রসব করেছেন। বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকায় শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা।

মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে চরজব্বর থানার ওসি মো. জিয়াউল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। এর আগে রোববার বিকালে সন্তান প্রসব নিয়ে ভুক্তভোগীর মা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে চরজব্বর থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী তরুণীর (১৭) সঙ্গে এক বছর আগে মো. রাসেল (২০) নামে যুবকের মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়। সে উপজেলার চরলক্ষ্মী গ্রামের মৃত নুরুল হকের ছেলে। তারপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে অভিযুক্ত মো. রাসেল ভিকটিমের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করার চেষ্টা করে। ভিকটিম প্রস্তাবে রাজি না হলে সে তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে।

সর্বশেষ গত ৫ জানুয়ারি রাত সাড়ে ৭টার দিকে রুবেল ভিকটিমের সঙ্গে কথা আছে বলে ডেকে নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করার চেষ্টা করে। ভিকটিম রাজি না হলে ভিকটিমকে তার শয়ন কক্ষে নিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ফলে ভিকটিম অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, বিষয়টি ভিকটিম প্রথমে গোপন করে রাখে। পরবর্তীতে গত ২-৩ মাস পূর্বে ভিকটিমের অন্যত্র বিয়ে হয়। ১৫ অক্টোবর সন্ধ্যা ৭টার দিকে ওই তরুণী সন্তান প্রসব করেন।

চরজব্বর থানার ওসি মো. জিয়াউল হক বলেন, এ ঘটনায় অভিযুক্ত যুবকের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। পুলিশ আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন