শামীম ওসমান বললেন আমাকে নয়, নেত্রীকে বাঁচান

প্রকাশিত: সেপ্টে ২৬, ২০২১ / ১১:১৩অপরাহ্ণ
শামীম ওসমান বললেন আমাকে নয়, নেত্রীকে বাঁচান

আমাকে নয়, আমার নেত্রী গণতন্ত্রের মানস কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বাঁচান। ২০০১ সালের ১৬ জুন চাষাড়ায় গ্রেনেড হামলায় মারাত্মক আহত অবস্থায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান তার নেতৃবৃন্দ ও কর্মীদের কাছে এই আকুতি জানিয়েছিলেন।

আজ রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৩নং ওয়ার্ডের বটতলা বঙ্গবন্ধু চত্বরে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কর্মী সম্মেলনের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমাদের প্রাণপ্রিয় মাটি ও মানুষের নেতার শরীর সেদিন বোমার আঘাতে ক্ষতবিক্ষত হয়ে অঝোর ধারায় রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল। এক সময় তিনি জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। জ্ঞান ফিরে আসার পর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমাকে নয় আমার নেত্রী শেখ হাসিনাকে আপনারা বাঁচান।

তাকে মেরে ফেলার চক্রান্ত চলছে। আমার নেতার কথাই সত্যি হয়েছিল। ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গ্রেনেট হামলা চালানো হয়েছিল। আল্লাহর অশেষ রহমত ও মানুষের দোয়ায় সেদিন তিনি নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের আহবায়ক শাহজালাল বাদলের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহিদ মোহাম্মদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বাবু চন্দন শীল,

সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া, ওয়ার্ড পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান সাজু প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে স্থানীয় কাউন্সিলর শাহজালাল বাদল বলেন, আমরা আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনাকে ভালোবাসি, তার জন্য হেসে হেসে প্রাণটুকু দিতে পারি। সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমানের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন