সম্পত্তির লোভে যুবককে ছুরিকাঘাত করে গ্রেপ্তার ফুফা

প্রকাশিত: সেপ্টে ২৫, ২০২১ / ১১:২৪অপরাহ্ণ
সম্পত্তির লোভে যুবককে ছুরিকাঘাত করে গ্রেপ্তার ফুফা

সম্পত্তি দখলের লোভে রাজধানীর সবুজবাগে নাঈম ইসলাম আকাশ (২২) নামের এক যুবক ও তাঁর মাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর ও ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। পরে তাঁরা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। মারধরকারী ব্যক্তির নাম মো. শাহরিয়ার রনি (২৯)। তিনি সম্পর্কে আকাশের ফুফা। এ ঘটনায় আকাশের ফুফু নিলিমা আক্তার নীলাসহ আরো পাঁচ-ছয়জন জড়িত বলে জানা গেছে।

গত বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে সবুজবাগের ওহাব কলোনিতে এ ঘটনা ঘটে। পরদিন শুক্রবার সবুজবাগ থানায় চারজনের নামে মামলা হয়েছে। আসামিরা হলেন মো. শাহরিয়ার রনি, নিলিমা আক্তার নীলা, ইসমত আরা, মো. রানা। এর মধ্যে এক নম্বর আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, আকাশের বাবা মারা যাওয়ার পর থেকে তাঁদের পৈতৃক সম্পত্তি দখল করতে বিভিন্ন সময় তাঁর ফুফা-ফুফু নানাভাবে নির্যাতন করে আসছিলেন। সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার হত্যার উদ্দেশ্যে আকাশকে মারধর এবং ছুরিকাঘাত করা হয়। তাঁদের কাছ থেকে টাকা ও সোনার চেইন ছিনিয়ে নেওয়া হয়।

আহত নাঈম ইসলাম আকাশ বলেন, ‘সম্পত্তি দখলের লোভে আমাকে ও আমার মাকে তারা হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর করেছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি। আমি সুষ্ঠু বিচার চাই।’

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সবুজবাগ থানার এসআই মাসুদ জমাদ্দার কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘পারিবারিক সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের ঘটনায় চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার এক নম্বর আসামি রনিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

এদিকে আকাশের ওপর হামলা ঘটনার মামলায় বিনা পারিশ্রমিকে আইনি সহায়তা দেওয়ার কথা জানিয়েছেন ঢাকা কোর্ট রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রায়হান মোরশেদ। এ বিষয়ে তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমি ছেলেটিকে আইনি সহায়তা দেব। নিজের বিবেকের তাড়নায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। একজন বাবাহারা এতিম ছেলে ন্যায়বিচার পাবে—এটাই প্রত্যাশা করছি।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন