৬২ দেশকে পরাজিত করে প্রথম স্থান অর্জন করেছে বাংলাদেশের হাফেজ ত্বকী

‘কুয়েত অ্যাওয়ার্ড’ নামে পরিচিত ৮ম আন্তর্জাতিক কুরআন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধি হাফেজ সাইফুর রহমান ত্বকী দ্বিতীয় স্থান লাভ করেছেন। কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আল আহমদ আল জাবের আল সাবাহ প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। কুয়েতের আওকাফ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত এ প্রতিযোগিতায় এবার বিশ্বের ৭০টি দেশের ১২৩ জন প্রতিযোগীর সঙ্গে ৩০ পারা হেফজ গ্রুপে অংশগ্রহণ করে হাফেজ ত্বকী দ্বিতীয় স্থান লাভ করে।

গত ১২ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া এ প্রতিযোগিতা শেষ হয় গত ১৯ এপ্রিল। বিশ্বব্যাপী কুরআনের প্রচার ও প্রসারের লক্ষ্যে কুয়েতের আওকাফ মন্ত্রণালয় এ উদ্যোগ গ্রহণ করে। হাফেজ সাইফুর রহমান ত্বকি রাজধানীর যাত্রাবাড়িস্থ আন্তর্জাতিক পুরস্কার প্রাপ্ত অসংখ্য কারী ও হাফেজ ছাত্রদের ওস্তাদ হাফেজ ক্বারী নেছার আহমদ আন-নাছিরি পরিচালিত মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসার ছাত্র।

সে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার শাহবাজপুর গ্রামের হাফেজ মো. বদরুল আলমের ছেলে। হাফেজ সাইফুর রহমান ত্বকী এনটিভিতে প্রচারিত পিএইচপি কুরআনের আলো হিফজ প্রতিযোগিতায় ২০১৪ সালে ৩০ হাজার হাফেজদের পেছনে পেলে প্রথম স্থান অর্জন করে। এ ছাড়াও একাধিকবার জাতীয় পুরস্কার লাভ করে। হাফেজ সাইফুর রহমান ত্বকীর এ অসামান্য গৌরব অর্জনে তাঁর প্রতি রইলো প্রাণঢালা অভিনন্দন। আল্লাহ তাআলাকে কুরআনের একজন একনিষ্ঠ খাদেম হিসেবে কবুল করুন। আমিন।

তিযোগিতায় ৩০ পারা হেফজুল কোরআন গ্রুপে তিনি অংশগ্রহণ করবেন। ১২ এপ্রিল থেকে শুরু বদরুল আলমের সন্তান। একাধিকবার জাতীয় পুরস্কার ছাড়াও হাফেজ সাইফুর রহমান ত্বকী এনটিভিতে প্রচারিত পিএইচপি কোরআনের আলো হিফজ প্রতিযোগিতায় ২০১৪ সালে ৩০ হাজার হাফেজদের পেছনে পেলে প্রথম স্থান অর্জন করেন। তিনি যাত্রাবাড়ীর হাফেজ ক্বারী নেছার আহমাদ আন নাছিরী পরিচালিত মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসার ছাত্র। ইতিপূর্বে এ মাদরাস

জর্ডানে অনুষ্ঠিত ২৭তম আন্তর্জাতিক হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় বিশ্বসেরা হয়েছেন বাংলাদেশি হাফেজ সাইফুর রহমান ত্বকী। বিশ্বের ৬২ ত্বকী রাজধানী ঢাকার মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল ক্যাডেট মাদরাসার ছাত্র তালিকায় ৩য়, ৪র্থ ও ৫ম স্থানে রয়েছে যথাক্রমে বাহরাইন, পাকিস্তান ও সৌদি আরবের প্রতিযোগী। হাফেজ সাইফুর রহমান ২০১৪ সালে এনটিভি আয়োজিত পিএইচপি কোরআনের আলো প্রতিভার সন্ধানে প্রতিযোগিতায় প্রায় ৩০ হাজার প্রতিযোগঅ।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত