দোহাজারী-ঘুমধুম রেলপথ আগামী বছরের শেষে উন্মুক্ত হবে

প্রকাশিত: সেপ্টে ২৩, ২০২১ / ০৮:৫১অপরাহ্ণ
দোহাজারী-ঘুমধুম রেলপথ আগামী বছরের শেষে উন্মুক্ত হবে

আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে চট্টগ্রামের দোহাজারী থেকে কক্সবাজারের রামু হয়ে ঘুমধুম পর্যন্ত প্রায় ১৮৮ কিলোমিটার রেললাইন নির্মাণের পুরো কাজ সম্পন্ন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। ২০১৮ সালে শুরু হওয়া নির্মাণ কাজ শেষ হলে ২০২২ সালের ডিসেম্বর নাগাদ রেল চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হবে।

আজ বৃহস্পতিবার রেলপথটির শেষ সীমানা ঘুমধুম এলাকা পরিদর্শনকালে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন রেলপথমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন।

রেলপথমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, ‘করোনা মহামারির কারণে রেলপথের নির্মাণ কাজ সাময়িক ধীরগতি হলেও এখন পুনরায় কাজের গতি ফিরে এসেছে। ১৮৮ কিলোমিটার রেললাইনের অবকাঠামো নির্মাণ প্রায় ৫০ ভাগ সম্পন্ন হয়েছে।’

মন্ত্রী আরো বলেন, দোহাজারী-ঘুমধুম রেললাইন বদলে দেবে স্থানীয়দের জীবনমান। প্রথমে এই প্রকল্পের ব্যয় ১৮ হাজার কোটি টাকা থাকলেও তা বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ৩৪ কোটি টাকা। এই প্রকল্পে যাত্রী ওঠা-নামার জন্য নির্মাণ করা হবে ৯টি স্টেশন। এসব স্টেশন নির্মাণও চলছে দ্রুতগতিতে।

ঘুমধুম সীমান্তে রেলপথের শেষ পয়েন্টটি পরিদর্শনকালে কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নিজাম উদ্দিন আহমদ, রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন