দীর্ঘায়ু হতে চাইলে যেসব খাবার এড়িয়ে চলবেন

প্রকাশিত: জুলা ২৮, ২০২১ / ১২:৫৫অপরাহ্ণ
দীর্ঘায়ু হতে চাইলে যেসব খাবার এড়িয়ে চলবেন

সুন্দর এই পৃথিবীতে বেশির ভাগ মানুষই দীর্ঘায়ু পেতে চান। কিন্তু শুধু দীর্ঘায়ু পেলেই হবে না, দীর্ঘদিন সুস্থভাবে বাঁচাটাও জরুরি। স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস, দৈনিক শারীরিক ব্যায়াম ও মনোচাপ থেকে মুক্তিতে আয়ু বাড়ে। এর বাইরে আরও কিছু স্বাস্থ্যকর অভ্যাস আছে যার মাধ্যমে খুব সহজে স্বাস্থ্য ভালো রাখা যায়। সুস্থ থাকতে ও দীর্ঘায়ু পেতে এসব নিয়ম সহজে আপনার অভ্যাসের সঙ্গে মানিয়ে যেতে পারে।

সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা গেছে, কোন কোন খাবার খেলে আয়ু কমে যেতে পারে। সুস্থভাবে বাঁচতে এড়িয়ে চলতে হবে এগুলো। দেখে নেওয়া যাক, কী কী রয়েছে এই তালিকায়।

প্যাকেটজাত খাবার

বার্গার, পিৎজা বা প্যাকেটে বিক্রি হওয়া রান্না করা মাংসের নানা পদ খেলে খুব ক্ষতি হয় না। কিন্তু নিয়মিত খেলেই ক্ষতি হয়। পরিসংখ্যান বলছেন, এই ধরনের খাবার বা ‘প্রসেসড ফুড’ যারা নিয়মিত খান, তাদের মধ্যে যে কোনও ধরনের ক্যানসারের আশঙ্কা ১২ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে যেতে পারে। ১১ শতাংশ পর্যন্ত বাড়তে পারে স্তনের ক্যানসারের ঝুঁকি।

অতিরিক্ত চিনি

চিনিতে কোনও পুষ্টিগুণ নেই। কিন্তু চিনি ক্যালোরিতে ভরপুর। পুষ্টিগুণহীন এই ক্যালোরিই নানা রকম রোগের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। ক্যানসার থেকে শুরু করে ডায়াবেটিস বা কিডনি বিকল হয়ে যাওয়ার মতো নানা জটিল অসুখ দেখা দিতে পারে অতিরিক্ত চিনির কারণেই। আর তার ফলেই কমতে পারে আয়ু।

অতিরিক্ত ভাজাভুজি

চিপস থেকে শুরু করে খোলা বিক্রি হওয়া অতিরিক্ত তেলের ভাজাভুজি— সবেতেই বিপুল পরিমাণে ক্যালোরি রয়েছে। এগুলো কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। যা নানা রকমের জটিল অসুখের ঝুঁকি বাড়ায়।

ধূমপান

আমেরিকার ‘সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন’-এর এক সমীক্ষা বলছে, যারা নিয়মিত ধূমপান করেন, তাদের আয়ু ১০ বছর পর্যন্ত কমে যেতে পারে। সুস্থ ভাবে দীর্ঘায়ু পাওয়ার জন্য ধূমপানের অভ্যাস গোড়াতেই ত্যাগ করতে হবে— এমনই পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।

অ্যালকোহল জাতীয় পানীয়

‘ল্যানসেট’ পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়া বেশ কয়েকটি সমীক্ষার রিপোর্ট বলছে, যারা সপ্তাহে ১৪ পেগ মদ্যপান করেন, তাদের ছয়মাস পর্যন্ত আয়ু কমে যেতে পারে। যারা সপ্তাহে ১৪ থেকে ২৫ পেগ পর্যন্ত মদ্যপান করেন, তাদের ক্ষেত্রে আয়ু কমে যেতে পারে এক থেকে দু’বছর। আর যারা সপ্তাহে ২৫ পেগের বেশি মদ্যপান করেন, তাদের ক্ষেত্রে আয়ু পাঁচ বছর পর্যন্ত কমে যেতে পারে। প্রায় ৬ লক্ষ মানুষের উপর সমীক্ষা চালিয়ে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন বিজ্ঞানীরা।

শরীরের ওজন বাড়তে দেবেন না

শরীরের ওজন বাড়তে দেবেন না। উচ্চতার তুলনায় যদি ওজন বেড়ে যায়, তবে সুস্থ মানুষের চেয়ে ২৯ শতাংশ মৃত্যুঝুঁকি বেড়ে যায়। আমেরিকান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন সাময়িকীতে ২০১৩ সালে প্রকাশিত ১০০টিরও বেশি গবেষণা পর্যালোচনা করে গবেষকেরা এ তথ্য পেয়েছেন। এ ছাড়া ওজন বেড়ে গেলে হৃদ্রোগ ও টাইপ-২ ডায়াবেটিসের আশঙ্কা বাড়ে।

সবুজ প্রকৃতির সান্নিধ্যে থাকুন

গবেষণায় দেখা গেছে, সবুজ প্রকৃতির মধ্যে কিছুক্ষণ হেঁটে বেড়ালে মানসিক অবস্থার উন্নতি হয়। এতে করে রোগমুক্ত দীর্ঘায়ূ পাওয়া সম্ভব। বিষণ্নতা দূর করতে, সিজোফ্রেনিয়ার মতো সমস্যা দূর করতেও প্রকৃতির সান্নিধ্য কাজে লাগবে। লন্ডনের ইমপেরিয়াল কলেজের এক গবেষণায় বলা হয়েছে, প্রতিদিন ৮০০ গ্রাম নানা ধরনের ফল এবং সবজি খাওয়া হলে দীর্ঘজীবী হবার সম্ভাবনা বাড়ে। তবে ৮০০ গ্রাম ফল এবং সবজি একবারে না খেয়ে দিনে ১০বার ভাগ করে খেতে হবে। সেজন্য প্রতিবার ৮০গ্রাম করে বিভিন্ন ধরনের ফল এবং সবজি খেতে হবে। গবেষকদের দাবি, এভাবে খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুললে পৃথিবীতে প্রতি বছর প্রায় ৮০ লাখ মানুষ অপরিণত মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পাবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন