দৌলতদিয়া ঘাটে ঈদের আগের দিন উপচে পড়া ভিড়

প্রকাশিত: জুলা ২০, ২০২১ / ০৮:৫১অপরাহ্ণ
দৌলতদিয়া ঘাটে ঈদের আগের দিন উপচে পড়া ভিড়

রাত পোহালেই পবিত্র ঈদুল আজহা।পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে দেশের গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া- পাটুরিয়া নৌ-রুটে শেষ মুহুর্তে ঘরে ফেরা মানুষের ঢল নেমেছে।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানী ঢাকাসহ আশপাশ অঞ্চলের সকল শিল্পকারখানা একযোগে ছুটি হওয়ায় নাড়ির টানে ফিরতে শুরু করে কর্মজীবী মানুষ।

দৌলতদিয়া ঘাটে এসব ঘরমুখী মানুষের চাপ সৃষ্টি হলেও এই রুটের সবগুলো ফেরি ও লঞ্চ চলাচল করায় যাত্রীরা স্বস্তিতে বাড়ি ফিরতে পারছেন।

সরেজমিন দেখা যায়, পাটুরিয়া ঘাট হতে ছেড়ে আসা প্রতিটি ফেরি ও লঞ্চে শুধু মানুষ আর মানুষ। মানুষের পাশাপাশি ব্যক্তিগত গাড়িরও আধিক্য দেখা গেছে।

লঞ্চ -ফেরিগুলো ঘাট নোঙর করার পর পন্টুন ও ঘাট এলাকায় মানুষের ভিড়ে তিল ধারনের ঠাঁই ছিল না। টার্মিনাল এলাকাতেও একই অবস্থা। এত মানুষের ভিড়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই ছিল না।

তবে ঘাট এলাকায় পর্যাপ্ত সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যের উপস্থিতি এবং প্রশাসনের সার্বক্ষণিক নজরদারির কারণে অপ্রীতিকর কোনো ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

সূত্র জানিয়েছে, দৌলতদিয়া ঘাটের প্রবেশমুখের বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোস্টের পাশাপাশি শৃঙ্খলা রক্ষায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

তবে অত্যাধিক যাত্রীর সুযোগে যাত্রীবাহী বাস ও মাইক্রোবাসগুলো দ্বিগুণ-তিনগুণ হারে ভাড়া আদায় করেছে বলে যাত্রীরা অভিযোগ করেছেন।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহণ বর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের ব্যবস্হাপক মো. শিহাব উদ্দিন বলেন, মানুষের দুর্ভোগ দূর করার জন্য আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সার্বক্ষণিক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এ নৌরুটে বর্তমানে ১৬টি ফেরি চলাচল করছে।

তিনি আরও বলেন, সবগুলো ফেরি চলাচল করায় দৌলতদিয়া ঘাটে যানবাহনের দীর্ঘ সারি নেই। তবে পাটুরিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে আসা ফেরি ও লঞ্চে ঘরমুখো মানুষের চাপ রয়েছে। নদীতে তীব্র স্রোত থাকায় ফেরি চলাচলে কিছুটা বেগ পেতে হচ্ছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন