পরিচালক পদ হারালেন রন হক সিকদার

প্রকাশিত: জুন ২৮, ২০২১ / ১১:০১অপরাহ্ণ
পরিচালক পদ হারালেন রন হক সিকদার

বেসরকারি খাতের ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ থেকে বাদ পড়েছেন রন হক সিকদার। ঋণ খেলাপি হওয়ায় তার পরিচালক পদের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদনে সায় দেয়নি বাংলাদেশ ব্যাংক। বিষয়টি জানিয়ে গত রবিবার বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ন্যাশনাল ব্যাংকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, পরিচালক পদ হারিয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে সোমবার গভর্নরের সঙ্গে দেখা করতে বাংলাদেশ ব্যাংকে যান তিনি। তবে গভর্নর ফজলে কবিরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পারেননি তিনি। পরে ডেপুটি গভর্নর আবু ফরাহ মো. নাছেরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

ঋণ সংক্রান্ত অনিয়ম ও ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরোর (সিআইবি) প্রতিবেদন নেতিবাচক হওয়ায় রন হক সিকদারের পরিচালক পদের মেয়াদ বাড়ানো হয়নি বলে জানান বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, ন্যাশনাল ব্যাংক থেকে দুইজন পরিচালকের মেয়াদ বাড়ানোর জন্য আবেদন জানানো হয়েছিল। এর মধ্যে রন হক সিকদারের বিষয়ে সিআইবি থেকে ছাড়পত্র পাওয়া যায়নি। ঋণ খেলাপি ও ঋণ সংক্রান্ত অনিয়মে যুক্ত থাকার কারণেই পরিচালক পদে রন হক সিকদারের মেয়াদ বাড়ানো হয়নি।

প্রসঙ্গত, প্রায় এক দশক ধরে ন্যাশনাল ব্যাংক পরিচালিত হচ্ছে সিকদার পরিবারের কর্তৃত্বে। ব্যাংকটির চেয়ারম্যান পদে দায়িত্ব পালন করছিলেন জয়নুল হক সিকদার। চলতি বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে দুবাইয়ে এ শিল্পোদ্যোক্তা মারা যান।

পরে ন্যাশনাল ব্যাংকের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেন জয়নুল হক সিকদারের স্ত্রী মনোয়ারা সিকদার। ব্যাংকটির পরিচালক পদে আছেন এ দম্পতির সন্তান পারভীন হক সিকদার, রিক হক সিকদার ও রন হক সিকদার। এর মধ্যে ঋণ খেলাপি হওয়ায় রন হক সিকদার ন্যাশনাল ব্যাংক পর্ষদ থেকে বাদ পড়লেন। তিনি সিকদার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন