নিউ ইয়র্কে ইতিহাস গড়তে চলেছেন বাংলাদেশি দুই নারী

প্রকাশিত: জুন ২৪, ২০২১ / ১২:৩৭অপরাহ্ণ

এর আগে অন্যান্য কয়েকটি স্টেটে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকানদের হাত ধরে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিতে সাফল্যের দেখা মিললেও নিউ ইয়র্কে তা ছিল অধরাই। এবার সেই খরা কাটিয়ে ইতিহাস গড়তে চলেছেন দুই নারী। নিউ ইয়র্কের গুরুত্বপূর্ণ দুটি নির্বাচনে তারা প্রাইমারি বা দলীয় প্রার্থী মনোনয়নের প্রথম বাধাটি ভালোভাবেই কাটিয়ে উঠেছেন। ডেমোক্র্যাটিক পার্টি থেকে নির্বাচনে লড়া এই দুই নারীই শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত নির্বাচনেও বিজয়ী হতে চলেছেন বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

তারা হচ্ছেন- নিউ ইয়র্ক সিটির ডিস্ট্রিক্ট ৩৯ এর বাংলাদেশি বংশদ্ভুত নতুন প্রজন্মের শাহানা হানিফ ও কুইন্স কাউন্টির সিভিল কোর্টের বিচারপতি পদে সোমা সাঈদ। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, যদিও এখনো আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি। তবে বেসরকারি ফলাফলে এরই মধ্যে বিজয়ের বার্তা পেয়ে গেছেন তারা। ডেমোক্র্যাট অধ্যুষিত নিউ ইয়র্কে রিপাবলিকান পার্টির আধিপত্য বিস্তারের সুযোগ কম। ফলে শেষ নির্বাচনেও তারা বিজয়ীর হাসি আসবেন বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে।

নিউ ইয়র্কের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (২২ জুন) ডেমোক্র্যাট প্রাইমারি নির্বাচনের পর শাহানা হানিফ কাউন্সিল ওমেন এবং সোমা সাইদ কুইন্স কাউন্টির বিচারপতি পদের জন্যে দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত করেছেন। জর্জ পদে নির্বাচিত হননি, তারা শুধুমাত্র ডেমোক্র্যাট দলের মনোনয়ন পেয়েছেন। আগামী ২ নভেম্বর চূড়ান্ত লড়াই অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে তারা রিপাবলিকানসহ স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মোকাবেলা করবেন।

নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা বলছেন, যেহেতু নিউ ইয়র্কের ডিস্ট্রিক্টগুলো ডেমোক্র্যাট অধ্যুষিত সেহেতু প্রাইমারির ফলাফলই গুরুত্ব বহন করে। তবে এখনো তাদেরকে চূড়ান্ত বিজয়ী বলার কোনো সুযোগ নেই। সিটি নির্বাচনে অতীতে স্বতন্ত্র প্রার্থীরও নির্বাচিত হওয়ার রেকর্ড রয়েছে। সেই সঙ্গে এবার যারা নিকটতম প্রার্থী ছিলেন তারাও দলীয় ব্যানার ছাড়া চূড়ান্ত নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন। সেই সঙ্গে নিয়ম অনুযায়ী কোনো প্রার্থী ৫০ শতাংশের কম ভোট পেলে রানঅফ ভোটের সুযোগও রয়েছে। তাই ২ নভেম্বরের পরই বলা যাবে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই দুই নারী শেষ হাসি হাসছেন কিনা।

তবে এরই মধ্যে ডেমোক্র্যাটিক দল থেকে গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচনে দুই প্রার্থী প্রাইমারির বাধা টপকে যাওয়ায় নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশি কমিউনিটির মধ্যে উৎসব শুরু হয়ে গেছে। বিশ্ব রাজধানীখ্যাত নিউ ইয়র্কের কাউন্সিলম্যান পদটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই নির্বাচনে এর আগে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কেউ দলীয় মনোনয়নও নিশ্চিত করতে পারেনি। এবার চূড়ান্ত বিজয় লাভ করার স্বপ্নও দেখছেন তারা।

একই সঙ্গে কুইন্স কাউন্টির বিচারপতির মতো অত্যন্ত সম্মানজনক এই পদেও বাংলাদেশি একজন প্রার্থী বিজয়ী হবেন সবাই তেমনটাই আশা করছেন। প্রাইমারীতে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হওয়ার সংবাদ পেয়ে শাহানা হানিফ এবং সোমা সাঈদের নির্বাচনী শিবিরেও উৎসবের আমেজ। তবে দুই প্রার্থীই বলেছেন, শেষ লড়াই শেষ করেই তারা চূড়ান্ত কথাটি বলতে চান। তাদের বিশ্বাস শেষ পর্যন্ত ভোটাররা তাদেরকে নির্বাচিত করবেন। নির্বাচিত হলে তাদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে কাজ করে যাওয়ার প্রতিশ্রুতিও দেন তারা।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন