Bangladesh News24

সব

ইমামকে ন্যাড়া করে মল খাওয়ালেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে মো. আব্দুল গফফার নামে এক ইমামকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন ও মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের এক সাবেক নেতার বিরুদ্ধে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বেতাগী উপজেলার মিয়ারহাট গ্রামের একটি জামে মসজিদে ইমামতি ও খতিবের দায়িত্ব পালন করেন আব্দুল গফফার। অবসর সময়ে ঝাড়ফুঁকের মাধ্যমে বিভিন্ন রোগীর চিকিৎসা করেন তিনি। মসজিদের কমিটি সংক্রান্ত বিষয়ে রাসেলের সঙ্গে মতবিরোধ ছিলো ওই ইমামের।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার বিকালে ইমাম আবদুল গফফারকে ফোন করে এক রোগীর চিকিৎসা (ঝাড়ফুঁক) দেয়ার কথা বলে দক্ষিণ মির্জাগঞ্জে নিয়ে আসেন মির্জাগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. রাসেল রাসেল। সেখান থেকে তাকে মোটরসাইকেলে তুলে রাসেলের বাড়িতে নিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে অমানবিকভাবে মারধর করেন রাসেল ও তার কয়েকজন সহযোগী। এসময় ওই ইমামের মাথা ন্যাড়া করে দেয় তারা। পরে টয়লেট থেকে মানুষের মল এনে তার মুখে ঢেলে দেয়।

খবর পেয়ে গাছের সঙ্গে হাত-পা বাধা অবস্থায় আহত আব্দুল গফফারকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ।

এঘটনায় ইমামের বড় ভাই মো. রাজ্জাক বাদী হয়ে মির্জাগঞ্জ থানায় রাসেলসহ ৮ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুল গফফার গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি মির্জাগঞ্জ দরবার শরিফে কিছুদিন চাকরি করেছি, তখন থেকে ছাত্রলীগ নেতা রাসেলের সঙ্গে পরিচয়। আমার কাছে বিশ্বাস করে কিছু রোগী আসত ঝাড়ফুঁক নেয়ার জন্য। আমি আল্লাহর কালাম পড়ে পানিপড়া দিলে অনেকে ভালো হয়েছে। তবে আমি কখনও মানুষের ক্ষতি করিনি।

অভিযুক্ত মো. রাসেলের দাবি, মির্জাগঞ্জে চাকরির সময় ওই ইমাম ভয়ভীতি দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ঝাড়ফুঁক দিয়ে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। এমনকি তার এক খালা ও খালাতো বোনের সঙ্গেও চিকিৎসার নামে প্রতারণা এবং আপত্তিকর আবদারও করেছে। তাই তাকে গণধোলাই দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেন রাসেল।

তবে প্রতারণা এবং নারীদের অনৈতিক প্রস্তাবের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আব্দুল গফফার।

মির্জাগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মেহেদী হাসান বলেন, ‘ইমাম সাহেবকে অমানুবিকভাবে মারধর করা হয়েছে। তার শরীরে মারের চিহ্ন স্পষ্ট। সে যদি কোন ঝামেলা করে থাকে তার জন্য আইন আছে, আদালত আছে। এভাবে কেন নির্যাতন করতে হবে?’

তিনি জানান, এরইমধ্যে রাসেলসহল তিন জনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। বাকি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

image-id-745605

ভাবির ছুরিকাঘাতে ননদ খুন

image-id-745602

রাজধানীতে নকল আইফোন তৈরি

image-id-745344

৬ মামলায় হাইকোর্টে একত্রে জামিন চাইবেন খালেদা জিয়া

image-id-744985

‘বেনিফিট নিবেন দায় নিবেন না, তা হবে না’

পাঠকের মতামত...
image-id-744861

শাহজালাল বিমানবন্দরে সিটের নিচে মিললো প্রায় ১০ কেজি স্বর্ণ

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মালয়েশিয়া থেকে ঢাকায় আসা একটি উড়োজাহাজের...
image-id-744790

চাকরির নামে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে উধাও ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে চাকরি দেয়ার নামে অর্ধকোটি টাকা নিয়ে শিউলী আক্তার...
image-id-744574

খালেদা জিয়ার জামিন আপিলেও বহাল

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাজাপ্রাপ্ত কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা...
image-id-744447

‘ডেসটিনি-২০০০ কোম্পানি কেন বিলুপ্ত করা হবে না’

ডেসটিনি-২০০০ লিমিটেড কোম্পানি কেন বিলুপ্ত করার নির্দেশ দেওয়া হবে না,...
image-id-745711

সোনালী পাম জিতল জাপানি চলচ্চিত্র ‘শপলিফটারস’

বিশ্ব চলচ্চিত্রের মর্যাদাকর আসর কান চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার...
image-id-745708

মনে হচ্ছিল ওরা আমাকে কিনে নিয়েছে: দেশে ফেরত সৌদি প্রবাসী নারী

সৌদি আরব থেকে দেশে ফেরার পর যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছেন...
image-id-745705

সৌদিতে অসহায় বাংলাদেশি শ্রমিকরা

চাকরির প্রলোভনে দালালের খপ্পরে পড়ে সৌদি আরব গিয়ে এখন ফুটপাতে...
image-id-745702

মৃত্যুর গুজবের পর সৌদি যুবরাজের নতুন ছবি, মহা বিতর্ক!

ইরান ও রাশিয়ার গণমাধ্যমে সৌদি আরবের সিংহাসনের উত্তরাধিকারি যুবরাজ ও...
© Copyright Bangladesh News24 2008 - 2018
Published by bdnews24us.com
Email: info@bdnews24us.com / domainhosting24@gmail.com